Restaurant Marketing Strategies

প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ

গর্ভধারন একটি নারীর জীবনের পরম আরাধ্য বাসনা, আর এই বাসনা পুর্নতা পায় সুস্থ্য সন্তান জন্মদানের মাধ্যমে। প্রতিটি মেয়ের জন্য গর্ভকালীন সময় যেমন গুরুত্বপুর্ন তেমনি গর্ভবতী হওয়ার শুরুর দিকের সময় আরো বেশি স্পর্শকাতর। যদিও একটি মেয়ে যতবারই গর্ভবতী হোক না কেন, প্রতিটি বারই তার নিকট উত্তেজনা, আবেগ এবং ভালবাসার। তবুও প্রথমবার গর্ভবতী হওয়াটা একটা সন্তান সম্ভবা মায়ের জন্য বিশেষ কিছু। প্রতিবার ই গর্ভবতী হলে শরীরে ও মনে বেশ কিছু পরিবর্তন এসে থাকে। তবে প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার সাথে কোন কিছুরই তুলনা চলে না। প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ সমুহ পরবর্তী সব বার থেকে কিছুটা ভিন্ন ভাবে প্রকাশ পেয়ে থাকে।

এই পোষ্টে আমরা প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা পর্যালোচনা করবো।

প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ

১। স্বাভাবিক পিরিয়ডে ছেদ পড়াঃ

মেয়েদের একটি নির্দিষ্ট সময় পর পর (সাধারনত ২৮ দিন) মাসিক বা পিরিয়ড হয়ে থাকে। প্রথমবার গর্ভবতী হলে এই স্বাভাবিক সময়ক্রমে ব্যাঘাত ঘটবে। অর্থ্যাৎ নির্দিষ্ট সময় পরেও মাসিক হবে না। সাধারন অবস্থায় মাসিকের স্বাভাবিক সময়ের ১৫-২০ দিন পরে টেষ্ট করে গর্ভধারন সম্পর্কে ধারনা লাভ করা যায়।

২। মর্নিং সিকনেস আসাঃ

সকালে ঘুম থেকে উঠেই অস্বস্তি লাগছে? শরিরে রাজ্যের ক্লান্তি ভর করে আছে? স্বাভাবিকের চেয়ে অধিক দুর্বল লাগছে? হ্যা এই মর্নিং সিকনেস প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ।

৩। বমি বমি ভাব হওয়া বা বমি হওয়াঃ

স্বাভাবিক ভাবে মেয়েরা যত বার গর্ভধারন করে প্রায় ততবারই এই লক্ষণটি প্রায়শই দেখা যায়, তবে প্রথম বার গর্ভধারনের সময় বমি বমি ভাব বা বমি হওয়ার মাত্রাটা একটি বেশি দেখা যায়। প্রায়ই কোন কারন ছাড়াই এমন হয়ে থাকে।

৪। স্তন কোমল হওয়া ও স্তন ফোলাঃ

শিশুর জন্য জন্মের পর আদর্শ খাবার হলো মায়ের বুকের দুধ। হঠাৎ করেই এই দুধ স্তনে আসে না। গর্ভধারনের শুরুর লক্ষণ গুলির মধ্যে অন্যতম হলো স্তনে স্বাভাবিক পরিবর্তন আসা। সাধারনত নারীদের স্তন এমনিতেই শরীরের সবচেয়ে কোমল অংশ হয়ে থাকে। প্রথমবার গর্ভধারন করলে মেয়েদের এই আকর্ষনীয় স্তন ধীরে ধীরে আরো নরম, কোমল ও ফুলে তাকে। এই শারিরিক পরিবর্তনের মাধ্যমে প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ প্রকাশ পায়।

৫। সাদা স্রাবঃ

সাধারনত স্রাব হওয়া মেয়েদের একটি খুব স্বাভাবিক ব্যাপার হলেও অধিক পরিমানে সাদা স্রাব হওয়া প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ। একজন নারী প্রথমবার গর্ভবতী হলে তার সাদা স্রাব হতে থাকে। এর মাধ্যমে বুঝে নেওয়া যায় আপনি মা হতে চলেছেন।

৬। মেজাজে বড় ধরনের পরিবর্তন আসাঃ

মানুষের মন মেজাজ যে কোন সময়ই পরিবর্তন হতে পারে। তবে যখন কোন নারী প্রথমবার গর্ভধারন করে তখন অতি দ্রুত তার মন ও মননে পরিবর্তন আসে। প্রায়ই পরিচিত প্রিয়জন দের সাথে বিরুপ আচরন করতে দেখা যেতে পারে। এটা খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। তাই একজন মেয়ে প্রথমবার গর্ভবতী হলে তার এরুপ লক্ষণ সমুহকে স্বাভাবিক ভাবেই নিতে হবে। মন ও মেজাজের এই বৃহৎ পরিবর্তন প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ।

৭। খাবারে অনীহা তৈরী হওয়াঃ

প্রথমবার গর্ভবতী হলে সবচেয়ে কমন যে লক্ষণটি একজন মায়ের মধ্যে দেখা যায় তা হলো খাবারের প্রতি স্বাভাবিকের তুলনায় অনীহা তৈরী। যে খাবারগুলি মুখরোচক বা অতি পছন্দের সেই খাবারের প্রতিও অনীহা লক্ষণীয়। ক্ষুদামন্দা বা খাদ্যে অরুচি দেখা দিতে পারে। পরিচিত খাবারেও বিশেষ ধরনের অপছন্দনীয় গন্ধ অনুভুত হয়।

মা হওয়া খুব সহজ পথ নয়। এই পথ বন্ধুর, কন্টকাকীর্ণ। অনেক ত্যাগ, কষ্ট, ধৈর্য ও সাধনার ফল প্রথমবার গর্ভধারন করা। আর এই গর্ভধারন তখনই সার্থক যখন সুস্থ সন্তানের জন্ম হয় তবে অবশ্যই মা ও শিশু উভয়েরই সুস্থতা কাম্য।

প্রথমবার গর্ভবতী হওয়ার লক্ষণ সমুহ বুঝে নিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রা এবং সুস্থ্যতার মাধ্যমে জন্মহোক প্রতিটি নবজাতক অনাগত শিশুর।

× WhatsApp